সোনালি মুরগি পালন করে গ্রামীণ মহিলাদের স্বনির্ভরতার পথ দেখাচ্ছে চোপড়া ব্লকের ধন্দু গছ গ্রামের গৃহ বধূ সিমতি বিশ্বাস। মহিলাদের নিজের পায়ে দাঁড় করানো বা আর্থিক দিক দিয়ে স্বনির্ভর করাই তাঁর উদ্দেশ্য। আর্থিক স্বনির্ভরতার মাধ্যমে মহিলাদের মানসিকভাবে স্বনির্ভর করে তুলতে চেয়েছেন তিনি।মেয়েরা আগে নিজে বুঝুক তারা স্বনির্ভর। মেয়েরা আগে নিজে জানুক তারা একাই একশো। তারপর সামাজিক মর্যাদা আপনি আসবে। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে নারীর আত্মবিশ্বাস ক্রমশ বাড়ছে। তাই তো ঘরের চার দেওয়ালের ঘেরাটোপ ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে পুরুষের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আজ মেয়েরাও হয়ে উঠেছেন রোজগেরে। তেমনই এক গ্রামের বধূ সিমতি বিশ্বাস।