ছেঁড়া কাঁথায় শুয়ে কোটিপতি জয়নগরের হতদরিদ্র বাপী মাস্টার

113

অনটন তাঁর নিত্য সঙ্গী৷ আর সেই অনটনকে ঘোচাতে ছেঁড়া কাঁথায় শুয়ে ভাগ্য ফেরানোর স্বপ্ন দেখতেন তিনি৷ কিন্তু সেটা এভাবে সত্যি হয়ে উঠবে তা কল্পনাও করেননি জয়নগর মজিলপুর পুরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কাঁসারি পাড়ার ৬১ বছরের প্রবীর কুমার প্রামানিক। জীবন সায়াহ্নে পৌঁছে স্বপ্ন পূরণের গল্পটাও অনেকটা সেই রূপকথার মতো!এলাকায় বাপী মাস্টার নামে পরিচিত এই ছাপোষা মানুষটি ১৯৮৭ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত জয়নগর শ্রীকৃষ্ণ এফপি স্কুলে বিনা বেতনে শিক্ষকতা করেছেন। তার পর থেকে ওই স্কুলে স্থায়ী চাকরি না পেয়ে জয়নগর-কুলতলি রুটের বাস, ট্রেকার, ম্যাজিক ভ্যান ইউনিয়নের স্টার্টার হিসাবে কাজে যোগ দেন।